ঢাকা, সোমবার,২৭ জানুয়ারি ২০২০

রাজনীতি

মুক্তিযুদ্ধে বঙ্গবন্ধু ছিলেন অসি আর বুদ্ধিজীবীরা ছিলেন মসী : তথ্যমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক

১৪ ডিসেম্বর ২০১৬,বুধবার, ১৯:১৯ | আপডেট: ১৪ ডিসেম্বর ২০১৬,বুধবার, ১৯:৪৮


প্রিন্ট
তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু (ফাইল ফটো)

তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু (ফাইল ফটো)

তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেছেন, মুক্তিযুদ্ধে বঙ্গবন্ধু ছিলেন অসি আর বুদ্ধিজীবী-সাংবাদিকরা ছিলেন মসী। ‘৭১ সালে পাকিস্তানী বাহিনী ও রাজাকাররা তাদের প্রধান শত্রু হিসেবে বঙ্গবন্ধু, এদেশের জনগণ বিশেষ করে নারী এবং বুদ্ধিজীবী ও সাংবাদিকদের ধ্বংস করতে চেয়েছিল। কিন্তু হার না মানা সংগ্রামে আমরা বিজয়ী হয়েছি।

শহিদ বুদ্ধিজীবী দিবসে আজ বুধবার সকালে রাজধানীর কাকরাইলে বাংলাদেশ প্রেস ইনস্টিটিউটে মুক্তিযুদ্ধে শহিদ ১৩ জন সাংবাদিকের ছবি সম্বলিত স্মৃতিফলকটি উন্মোচন করে একথা বলেন তথ্যমন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রীর তথ্য উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরী, প্রধান তথ্য অফিসার এ কে এম শামীম চৌধুরী, বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থার ব্যবস্থাপনা পরিচালক আবুল কালাম আজাদ, চলচ্চিত্র ও প্রকাশনা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মোহাম্মদ লিয়াকত আলী খান, প্রেস ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক শাহ আলমগীর, শহিদ সাংবাদিক তনয়া শমী কায়সারসহ গণমাধ্যম প্রতিনিধিবৃন্দ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

ফলক উন্মোচনের আগে শহীদ সাংবাদিকদের স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানিয়ে তথ্যমন্ত্রী আরো বলেন, শহীদ সাংবাদিকদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে আমাদের দেশজ সংস্কৃতি, মনন ও গণমাধ্যমের বিকাশ অপরিহার্য। এজন্য জাতিকে সাম্প্রদায়িকতার আলখাল্লা থেকে মুক্ত হতে হবে। তিন হাজারেরও বেশি পুরনো আমাদের এই সভ্যতায় বঙ্গবন্ধু যে আধুনিক বাঙালি জাতীয়তাবাদের জন্ম দিয়েছেন, সেই চেতনা বুকে ধারণ করে আত্মত্যাগী সাংবাদিক-বুদ্ধিজীবীদের পথই আমাদের সমৃদ্ধির পথ।

মুক্তিযুদ্ধে শহিদ সাংবাদিকদের মধ্যে সিরাজুদ্দীন হোসেন, শহীদুল্লাহ কায়সার, খোন্দকার আবু তালেব, নিজামুদ্দীন আহমদ, এস এ মান্নান (লাডু ভাই), আ ন ম গোলাম মোস্তফা, সৈয়দ নাজমুল হক, এ কে এম শহীর্দুলাহ (শহীদ সাবের), আবুল বাশার, শিবসাধন চক্রবর্তী, চিশতী শাহ হেলালুর রহমান, মুহম্মদ আখতার এবং সেলিনা পারভীনের ছবি সম্বলিত স্মৃতিফলকটি প্রেস ইনস্টিটিউটের দোতলার গ্যালারিতে স্থান পেয়েছে।

এ সময় অন্যান্যের মধ্যে প্রধানমন্ত্রীর তথ্য উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরী, প্রেস ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক শাহ আলমগীর এবং শহিদ সাংবাদিক তনয়া শমী কায়সার মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিচারণ ও শহিদ সাংবাদিকদের স্মরণ করে বক্তব্য দেন।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫