ঢাকা, বুধবার,২০ নভেম্বর ২০১৯

প্রকৃতি ও পরিবেশ

ধসে পড়েছে এভারেস্টের হিলারি স্টেপ

২২ মে ২০১৭,সোমবার, ০৬:১৭


প্রিন্ট
হিলারি স্টেপ ছিল এভারেস্টে ওঠার শেষে দিকের সর্বশেষ বড় চ্যালেঞ্জ

হিলারি স্টেপ ছিল এভারেস্টে ওঠার শেষে দিকের সর্বশেষ বড় চ্যালেঞ্জ

মাউন্ট এভারেস্টে উঠার শেষের দিকের সর্বশেষ বড় চ্যালেঞ্জ হিলারি স্টেপ ধসে পড়েছে। এতে করে এভারেস্ট জয় নতুন চ্যালেঞ্জের মুখে পড়বে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

গত বছর কিছু ছবিতে দেখা গিয়েছিল, হিলারি স্টেপের আকার বদলে গেছে। সম্পূর্ণ খাড়াভাবে উঠে যাওয়া এই পথটি ছিল ১২ মিটার।
ব্রিটেনের পর্বতারোহী টিম মোসডেল এ সপ্তাহের শুরুতেই এভারেস্টের চূড়ায় উঠার পর প্রথম আবিষ্কার করেন, হিলারি স্টেপ ধসে পড়েছে।
বেজ ক্যাম্পে নামার পর নিজের ফেসবুক পাতায় তিনি লিখেছেন তার অভিজ্ঞতার কথা।
বিশ্বে প্রথমবার এভারেস্টের চূড়ায় উঠার কৃতিত্ব নিউজিল্যান্ডের পর্বতারোহী স্যর এডমুন্ড হিলারির।
তিনি উঠেছিলেন ১৯৫৩ সালে। তার নামেই ঐ পথটির নামকরণ।
তাঁর পরে হিমালয়ের নেপাল অংশ হয়ে পৃথিবীর যত পর্বতারোহী এভারেস্টের চুড়ায় উঠেছেন, বরফে ঢাকা ঐ পাথুরে পথটি তাদের সবাইকে পার হতে হয়েছে।
এটি ছিল এভারেস্টে ওঠার সর্বশেষ বড় চ্যালেঞ্জ।
এভারেস্টে ওঠার সবচেয়ে জটিল অংশ ছিলো এই হিলারি স্টেপ। ২৯ হাজার ফিট উচ্চতায় এর অবস্থান।
২০১৫ সালে নেপালে ৭.৮ মাত্রার যে ভয়াবহ ভূমিকম্প হয়েছিলো তাতেই এটি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বলে ধারনা করা হচ্ছে।
এখন সেখানে অবশিষ্ট আছে পাথরের কয়েকটি চাই। ঐ ভূমিকম্পে মাউন্ট এভারেস্টের উচ্চতাও কমে গিয়েছিল এক ইঞ্চির মতো।
নেপাল ও তিব্বতের অংশে হিমালয়ের পর্বতগুলোর চূড়ায় উঠা এমনিতেই বিপজ্জনক।
মাত্র গতকালই চারজন পর্বতারোহী নিহত হয়েছেন।
এখন হিলারি স্টেপ ধসে পড়ায় এভারেস্টের চূড়া পর্যন্ত যাওয়া আরো বিপজ্জনক হয়ে উঠবে বলে পর্বতারোহীরা উদ্বেগ প্রকাশ করছেন।
সূত্র : বিবিসি

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫