ঢাকা, মঙ্গলবার,১৯ নভেম্বর ২০১৯

নারী

শুভ হোক ২০১৮

মাকসুদা রহমান

১৫ জানুয়ারি ২০১৮,সোমবার, ০০:০০


প্রিন্ট

শুরু হলো আরো একটি নতুন বছর, ২০১৮। প্রতি বছরের মতো এবারো অনেক প্রত্যাশা নিয়ে শুরু হয়েছে নতুন বছর। পুরনো বছরের সব হতাশা, না পাওয়ার বেদনা ভুলে আবারো সবাই নতুন আশায় বুক বেঁধেছে। নতুন করে ভালো কিছু হওয়ার প্রত্যাশায়।
কিন্তু যুগ যুগ ধরে যেসব নারী পিছিয়ে আছেন, কিংবা ঘরে-বাইরে নির্যাতনের শিকার হচ্ছেন, সত্যিই কি ২০১৮ সাল তাদের জন্য ভালো কিছু বয়ে আনবে? বন্ধ হবে কি যৌতুকের জন্য নারী নির্যাতন? কিংবা যৌন হয়রানি সইতে না পেরে আর কোনো স্কুলপড়–য়া মেয়ে আত্মহত্যা করবে না? এবার তেমন কিছু ঘটবে না, এমনটা মনে করার কোনো কারণ নেই। কারণ, বছর বদলালেও আমাদের মানসিকতা বদলায়নি। তাই নারীদের ওপর অত্যাচারও বন্ধ হয়নি। বরং পত্রিকায় বড় করে যে সংবাদটা নজর কেড়েছে সেটা হলো বঙ্গবন্ধু মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ডাক্তার তার রোগীকে ভয় দেখিয়ে ধর্ষণ করেছে। শুধু এটাই নয়, অন্য খবরটি হলো একটি নামকরা বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক ছাত্রী একটি রজানৈতিক দলের কর্মসূচিতে অংশ নেননি বলে এই প্রচণ্ড শীতের রাতে তাকে হল থেকে বের করে দেয়া হয়েছে। প্রচণ্ড ঠাণ্ডায় মেয়েটি সারা রাত দাঁড়িয়ে ছিল হলের সামনের রাস্তায়। সব পত্রিকার প্রথম পাতায় গুরুত্বের সাথে যে খবরটি ছাপা হয়েছে তা হলো ইচ্ছার বিরুদ্ধে এই রাজধানীতেই এক মেয়েকে তুলে নিয়ে জোর করে বিয়ে ও নির্যাতন করেছেন পুলিশের এক ডিআইজি। বছরের শুরুতেই নারী নির্যাতনের ঘটনা পত্রিকায় অনেক। তাই আমরা শঙ্কিত বছরটি কেমন যাবে! এই নির্যাতন ও অত্যাচার থেকে বের হওয়ার পথ বের করতে হবে আমাদের। বদলাতে হবে নিজেদেরই। মেয়েদের সম্মানের চোখে দেখার শিক্ষা পরিবার থেকেই দিতে হবে সব সন্তানকে। সামাজিকভাবে যদি প্রতিরোধ গড়ে ওঠে, তবে আস্তে আস্তে কমে আসবে নারী নির্যাতন। এ ব্যাপারে প্রশাসনকে হতে হবে কঠোর। এজাতীয় অন্যায়কারীকে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিতে হবে। নারী নির্যাতনের জন্য ধরা পড়ে অনেক অভিযুক্তই, কিন্তু শাস্তি হয় না সেভাবে। আইনের ফাঁক গলে বের হয়ে যায় এরা। তাই এ ব্যাপারে কঠোর পদক্ষেপ নিতে হবে। সচেতন হতে হবে সবাইকে, যাতে একজন নারীও ঘরে-বাইরে নির্যাতিত না হয়। নববর্ষে সবার শুভবোধের উদয় হোক। সবার কাছে নববর্ষ ভালো ও মঙ্গলময় হয়ে উঠুকÑ এটাই প্রত্যাশা।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫