ঢাকা, বুধবার,১৩ নভেম্বর ২০১৯

দিগন্ত জবস

পল্লী সঞ্চয় ব্যাংকে ৪৮৫ জন ক্যাশ সহকারী নিয়োগ

২৪ মার্চ ২০১৮,শনিবার, ০০:০০


প্রিন্ট

পল্লী সঞ্চয় ব্যাংকে ‘ক্যাশ সহকারী’ পদে নিয়োগের জন্য নিচে বর্ণিত শর্তাধীনে বাংলাদেশী নাগরিকদের কাছ থেকে অনলাইনে দরখাস্ত আহ্বান করা হয়েছে। অনলাইনে আবেদনপত্র জমা দেয়ার শেষ তারিখ ও সময় : ২৯ মার্চ ২০১৮, রাত ১২টা পর্যন্ত।
লিখেছেন মাহমুদা সুলতানা
পদের নাম : ক্যাশ সহকারী।
পদের সংখ্যা : ৪৮৫টি।
আবেদনের যোগ্যতা : এইচএসসি বা সমমানের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ। শিক্ষাজীবনের কোনো স্তরে তৃতীয় বিভাগ বা শ্রেণী গ্রহণযোগ্য হবে না এবং গ্রেডিং পদ্ধতির ক্ষেত্রে এসএসসি বা এইচএসসিতে জিপিএ ২.৮৫ থাকতে হবে। কম্পিউটার চালনায় দক্ষতা থাকতে হবে।
বেতন স্কেল : ১০২০০-২৪৬৮০/- এবং নিয়ম অনুযায়ী অন্যান্য সুবিধা।
বয়সসীমা : প্রার্থীদের বয়স ২৮-০২-২০১৮ তারিখে ১৮ হতে ৩০ বছর হতে হবে। আবেদনকারী মুক্তিযোদ্ধা/শহীদ মুক্তিযোদ্ধার পুত্র/কন্যা/শারীরিক প্রতিবন্ধী হলে ২৮-০২-২০১৮ তারিখে বয়স সর্বোচ্চ ৩২ বছর।
মৌখিক পরীক্ষার সময় যেসব কাগজপত্র দেখাতে হবে : মৌখিক পরীক্ষার সময় সব সনদপত্রের মূলকপি দেখাতে হবে এবং পূরণকৃত আবেদনের প্রিন্টকপিসহ সত্যায়িত এক সেট সনদপত্র জমা দিতে হবে। স্থায়ী বাসিন্দার প্রমাণ হিসেবে স্থানীয় প্রযোজ্য কর্তৃপক্ষের (ইউনিয়ন পরিষদ/পৌরসভা/ সিটি করপোরেশন) সনদপত্র জমা দিতে হবে। মুক্তিযোদ্ধা/শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের পুত্র/কন্যা, মুক্তিযোদ্ধা/শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের পুত্র/কন্যার পুত্র/কন্যা, শারীরিক প্রতিবন্ধী, এতিমখানা নিবাসী, উপজাতি, আনসার-ভিডিপি ইত্যাদি কোটায় আবেদনকৃত প্রার্থীদের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে সনদপত্র জমা দিতে হবে। মুক্তিযোদ্ধা/শহীদ মুক্তিযোদ্ধার পুত্র/কন্যার পুত্র/কন্যার ক্ষেত্রে মুক্তিযোদ্ধার সাথে সম্পর্কের বিষয়ে সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী প্রমাণপত্র জমা দিতে হবে।
জেনে রাখুন : বিবাহিত মহিলা প্রার্থীদের ক্ষেত্রে স্থায়ী ঠিকানা হিসেবে স্বামীর স্থায়ী ঠিকানা ব্যবহার করতে হবে।
অনলাইনে আবেদন ফরম পূরণ করা : আগ্রহী প্রার্থীদের ২৯ মার্চ ২০১৮ রাত ১২টা পর্যন্ত শুধু যঃঃঢ়://ঢ়ংন.ঃবষবঃধষশ.পড়স.নফ-এ ওয়েবসাইটের ঙহষরহব অঢ়ঢ়ষরপধঃরড়হ ঋড়ৎস পূরণের মাধ্যমে আবেদন করতে হবে।
অনলাইনে আবেদনপত্র জমা দেয়ার শেষ তারিখ ও সময় : ২৯ মার্চ ২০১৮, রাত ১২টা পর্যন্ত। ওই সময়সীমার মধ্যে টংবৎ ওউ প্রাপ্ত প্রার্থীরা ঙহষরহব-এ আবেদনপত্র ঝঁনসরঃ-এর সময় থেকে পরবর্তী ৭২ ঘণ্টার মধ্যে এসএমএসের মাধ্যমে পরীক্ষার ফি জমা দিতে পারবেন। প্রার্থী তার রঙিন ছবি (দৈর্ঘ্য ৩০০ ´ প্রস্থ ৩০০) ঢ়রীবষ ও স্বাক্ষর (দৈর্ঘ্য ৩০০ ´ প্রস্থ ৮০) ঢ়রীবষ স্ক্যান করে নির্ধারিত স্থানে টঢ়ষড়ধফ করবেন। ছবির সাইজ সর্বোচ্চ ১০০কই ও স্বাক্ষরের সাইজ সর্বোচ্চ ৬০কই হতে হবে। আবেদনপত্র পূরণকৃত তথ্যই যেহেতু পরবর্তী সব কার্যক্রমে ব্যবহৃত হবে, সেহেতু আবেদনপত্র ঝঁনসরঃ করার আগেই পূরণকৃত সব তথ্যের সঠিকতা সম্পর্কে প্রার্থী নিজে শতভাগ নিশ্চিত হবেন। প্রার্থী পূরণকৃত আবেদনপত্রের একটি প্রিন্টকপি পরীক্ষা সংক্রান্ত কাজে প্রয়োজনে সংরক্ষণ করবেন।
ঝগঝ পাঠানো ও পরীক্ষার ফি দেয়া : ঙহষরহব-এ আবেদনপত্র যথাযথভাবে পূরণ করে নির্দেশনা মতে ছবি এবং ঝরমহধঃঁৎব টঢ়ষড়ধফ করে আবেদনপত্র ঝঁনসরঃ করা সম্পন্ন হলে কম্পিউটারে ছবিসহ অঢ়ঢ়ষরপধঃরড়হ চৎবারবি দেখা যাবে। নির্ভুলভাবে আবেদনপত্র ঝঁনসরঃ করা শেষ হলে প্রার্থী একটি টংবৎ ওউ, ছবি ও স্বাক্ষরযুক্ত একটি অঢ়ঢ়ষরপধহঃ’ং ঈড়ঢ়ু পাবেন। ওই অঢ়ঢ়ষরপধহঃ’ং ঈড়ঢ়ু প্রার্থী প্রিন্ট অথবা উড়হিষড়ধফ করে সংরক্ষণ করবেন। অঢ়ঢ়ষরপধহঃ’ং ঈড়ঢ়ু-তে একটি টংবৎ ওউ নম্বর দেয়া থাকবে এবং টংবৎ ওউ নম্বর ব্যবহার করে প্রার্থীরা যেকোনো টেলিটক প্রিপেইড মোবাইল নম্বরের মাধ্যমে দু’টি ঝগঝ করে পরীক্ষার ফি বাবদ ২৫০ টাকা অনধিক ৭২ ঘণ্টার মধ্যে জমা দেবেন। আবেদনপত্রের সব অংশ পূরণ করে ঝঁনসরঃ করা হলেও পরীক্ষার ফি জমা না দেয়া পর্যন্ত ঙহষরহব-এ আবেদনপত্র কোনো অবস্থাতেই গৃহীত হবে না।
প্রবেশপত্র প্রাপ্তি : প্রবেশপত্র প্রাপ্তির বিষয়টি যঃঃঢ়://ঢ়ংন.ঃবষবঃধষশ.পড়স.নফ অথবা চঝই ডবনংরঃব: িি.িঢ়ধষষরংধহপযধুনধহশ. মড়া.নফ-এর ওয়েবসাইটে এবং প্রার্থীর মোবাইল ফোনে ঝগঝ-এর মাধ্যমে (শুধু যোগ্য প্রার্থীদের) যথাসময়ে জানানো হবে। আবেদনপত্রে প্রার্থীর প্রদত্ত মোবাইল ফোনে পরীক্ষাসংক্রান্ত যাবতীয় যোগাযোগ সম্পন্ন করা হবে। ওই নম্বরটি সার্বক্ষণিক সচল রাখা এবং প্রাপ্ত নির্দেশনা তাৎক্ষণিকভাবে অনুসরণ করতে হবে। ঝগঝ-এ প্রেরিত টংবৎ ওউ এবং চধংংড়িৎফ ব্যবহার করে পরবর্তী সময়ে রোল নম্বর, ছবি, পরীক্ষার তারিখ, সময় ও ভেনুর নাম ইত্যাদি তথ্য সংবলিত প্রবেশপত্র প্রার্থী উড়হিষড়ধফপূর্বক চৎরহঃ (সম্ভব হলে রঙিন) করে নেবেন। প্রার্থী এই প্রবেশপত্রটি লিখিত পরীক্ষায় অংশগ্রহণের সময় এবং উত্তীর্ণ হলে মৌখিক পরীক্ষার সময় অবশ্যই দেখাবেন।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫