ঢাকা, শনিবার,২০ এপ্রিল ২০১৯

দেশ

স্বামী সৌদি আরবে : নববধূর গলায় ফাঁস

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সংবাদদাতা

০৮ এপ্রিল ২০১৮,রবিবার, ১৯:৫৬


প্রিন্ট
স্বামী সৌদি আরবে : নববধূর গলায় ফাঁস

স্বামী সৌদি আরবে : নববধূর গলায় ফাঁস

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগরে ঝুলন্ত অবস্থায় পান্না (১৯) নামে এক নববধূর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।  রোববার সকালে উপজেলার পূর্বভাগ ইউনিয়নের পূর্বভাগ গ্রামের নিহতের স্বশুর বাড়ি থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়। পান্না একই এলাকার বেজুয়া গ্রামের মৃত শাহ আলমের মেয়ে।

নিহতের পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, তিন মাস আগে পূর্ভভাগ গ্রামের সাবেক মেম্বার সৌদি প্রবাসী ইমরানের সাথে বেজুরা গ্রামের মৃত শাহআলমের মেয়ে পান্নার বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে তাদের দাম্পত্য জীবন ভালোই কাটছিল। কিছুদিন আগে ইমরান তার স্ত্রীকে রেখে চাকরীর সুবাদে সৌদি আরব চলে যায়। এর মধ্যে শনিবার রাতে পান্না অজ্ঞাত কারণে বাড়ির সবার অজান্তে ঘরের ফ্যানের সাথে ওড়না দিয়ে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে নিহতের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেন। তবে কি কারণে তিনি আত্মহত্যা করেছেন এই বিষয়ে কেউ কিছু বলতে পারছে না।

নাসিরনগর থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আবু জাফর বলেন, পুলিশ ঘটনাস্থালে গিয়ে নিহতের লাশ উদ্ধার করেছে। ময়নাতদন্তের জন্য লাশ জেলা সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এখনো পরিবারের পক্ষ থেকে কেউ অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে পরবর্তি আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সংঘর্ষে আহত বৃদ্ধের মৃত্যু

এদিকে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগরে পূর্ব বিরোধের জের ধরে সংঘর্ষে আহত নোয়াজ্জিস মিয়া (৬০) নামে এক বৃদ্ধের চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু হয়েছে। রোববার সকালে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়। এর আগে শনিবার দুপুরে সংঘর্ষে নোয়াজ্জিস মিয়া টেটাবিদ্ধ হয়ে গুরুত্বর আহত হন।

নাসিরনগর উপজেলার চাপড়তলা ইউনিয়নের বেঙ্গাউতা গ্রামে ইলিয়াছ মিয়া ও সোহাগ মিয়ার মধ্যে দীর্ঘদিন যাবত মামলা চলছিল। বিরোধ নিস্পত্তি করার জন্য শনিবার সকালে উপজেলায় বসে মীমাংসা করার কথা থাকলে ইলিয়াছ মিয়া উপজেলা সদরে আসেন। পরে উৎ পেতে থাকা সোহাগ মিয়া আশুরাইল ও ভোলাউকের কিছু সন্ত্রাসী নিয়ে হামলা করে।

বিষয়টি এলাকায় জানাজানি হলে উভয় পক্ষের লোকজন সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এসময় নোয়াজ্জিস মিয়া টেটাবিদ্ধ হয়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিবেশ শান্ত করে। গুরুতর আহত অবস্থায় নোয়াজ্জিস মিয়াকে সিলেট উসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করলে রোববার সকালে সে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়।

নাসিরনগর থানা অফিসার ইনচার্জ আবু জাফর জানান, শনিবার সকালে জমি নিয়ে বিরোধকে কেন্দ্র করে দুপক্ষের মধ্যে দেশিয় অস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষ হয়। এর মধ্যে নোয়াজ্জিস মিয়া নামে এক বৃদ্ধ চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন বলে আমি শুনেছি। সেখানে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। এই ঘটনায় এখনো পর্যন্ত থানায় কোন মামলা হয়নি।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫