ঢাকা, বুধবার,১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯

অর্থনীতি

দাম বেড়েছে চাল সবজি ও মুরগির

অর্থনৈতিক প্রতিবেদক

২১ এপ্রিল ২০১৮,শনিবার, ০৬:১০


প্রিন্ট

রাজধানী ঢাকার বাজারে গত এক সপ্তাহের ব্যবধানে চাল, সবজি ও মুরগির দাম বেড়েছে। ধান কাটা শুরু হলেও নতুন চাল বাজারে না আসায় সরু-মোটা নির্বিশেষে সবধরনের চালের দাম নতুন করে কেজিতে এক থেকে দুই টাকা বেড়েছে বলে জানান বিক্রেতারা। গত সপ্তাহের চেয়ে কেজিতে ১০ থেকে ২৫ টাকা বেড়েছে মুরগির দাম। সবজির দামও বেড়েছে কেজিতে ৫ থেকে ১০ টাকা।

বাজার ঘুরে দেখা যায়, বাজারে এখনো নতুন চাল আসেনি। নতুন চাল এলে দাম কমতে পারে এ আশঙ্কায় বাড়তি চাল দোকানে তুলছেন না বিক্রেতারা। ফলে দাম কিছুটা বেড়েছে। খুচরা বাজারে গতকাল মোটা স্বর্ণা চাল বিক্রি হয় ৪২ থেকে ৪৪ টাকায়, যা গত সপ্তাহে বিক্রি হয়েছে ৩৮ থেকে ৪০ টাকায়। এ ছাড়া পাইজাম ৪৫ থেকে ৪৬ টাকা, মিনিকেট মানভেদে ৬০ থেকে ৬৫ টাকা, বিরি ২৮ বিক্রি হচ্ছে ৪৬ টাকায় এবং পোলাও চাল ৯০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। আগামী সপ্তাহ নাগাদ বাজারে নতুন চাল আসতে পারে তখন দাম কিছুটা কমতে পারে বলে পূর্বাভাস দেন বিক্রেতারা।

গতকাল রাজধানী ঢাকার কয়েকটি পাইকারি ও খুচরা সবজির বাজার ঘুরে দেখা যায়, গত সপ্তাহে যে বেগুন বিক্রি হয়েছিল ৫০ থেকে ৫৫ টাকায়, গতকাল সেগুলো বিক্রি হয় ৬০ থেকে ৭০ টাকায়। এ ছাড়া শিম ২০ টাকা বেড়ে ৬০ টাকায়, কাঁচামরিচ বিক্রি হচ্ছে ১০ টাকা বেড়ে ৫০ থেকে ৬০ টাকা, পেঁপে ৪০ টাকা, করলা ৫০ টাকা, কচুর ছড়া ৩০ থেকে ৪০ টাকা, কচুর লতি ৪০ থেকে ৫০ টাকা, টমেটো ২৫ থেকে ৩০ টাকা, গাজর ৪০ টাকা, শসা ৪০ থেকে ৫০ টাকা, ক্ষিরাই ৭০ থেকে ৮০ টাকা, আলু ২০ টাকা, প্রতি পিস বাঁধাকপি ৩০ টাকা, ফুলকপি ৩৫ টাকা, বরবটি ৫০ থেকে ৬০ টাকা, চিচিঙ্গা ৫০ টাকা করে বিক্রি হচ্ছে। এ ছাড়া এক আঁটি লালশাক ১৫ থেকে ২০ টাকা ও ধনিয়াপাতার কেজি ১০০ টাকা, কাচ কলা হালি ৩০ টাকা, লাউ প্রতিপিচ ৫০ টাকা, লেবু এক হালি ৪০ টাকা দরে বিক্রি হয়।
ব্যবসায়ীরা জানান, সরবরাহ কম থাকায় গত সপ্তাহে ১৩০ টাকায় বিক্রি হওয়া ব্রয়লার মুরগি ১৪৫ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। অন্য দিকে ১৮০ থেকে ২০০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে পাকিস্তানি লাল মুরগি, যা গত সপ্তাহে ছিল ১৬০ থেকে ১৭০ টাকা কেজি। এ ছাড়া গরুর গোশত বিক্রি হচ্ছে ৪৮০ থেকে ৫০০ টাকা এবং খাসির গোশত ৭৫০ থেকে ৭৮০ টাকা দরে।

মাছের বাজার ঘুরে দেখা যায়, বৈশাখের কারণে বেড়ে যাওয়া ইলিশের দাম কিছুটা কমলেও অপরিবর্তিত রয়েছে অন্য মাছের দাম। খুচরা বাজারে গতকাল প্রতি কেজি রুইমাছ ২৫০ থেকে ৩৫০ টাকা, সরপুঁটি ২৫০ থেকে ৩৫০ টাকা, কাতলা ৩০০ থেকে ৩৫০ টাকা, তেলাপিয়া ১৩০ থেকে ১৮০ টাকা, সিলভার কার্প ১৬০ থেকে ২৫০ টাকা, চাষের কৈ ২৫০ থেকে ৩৫০ টাকা দরে বিক্রি হয়। প্রতি কেজি পাঙ্গাস ১৪০ থেকে ২৫০ টাকা, টেংরা ৪০০ থেকে ৬০০ টাকা, মাগুর ৬০০ থেকে ৮০০ টাকা, প্রকারভেদে চিংড়ি ৪০০ থেকে ৮০০ টাকা বিক্রি হয়।

মসলার বাজারে আদা ১০০ থেকে ১১০ টাকা, রসুন মানভেদে ৮০ থেকে ৯০ টাকা এবং দেশি পেঁয়াজ ৩৮ থেকে ৪০ টাকায় বেচাকেনা হতে দেখা যায়। অন্য দিকে ভারত থেকে আমদানিকৃত বড় পেঁয়াজ গতকাল ২৮ থেকে ৩০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হয়।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫