ঢাকা, শুক্রবার,২৩ আগস্ট ২০১৯

প্রশাসন

কোটা নিয়ে অগ্রগতি নেই : মন্ত্রিপরিষদ সচিব

বিশেষ সংবাদদাতা

০৭ মে ২০১৮,সোমবার, ১৬:৫৬ | আপডেট: ০৭ মে ২০১৮,সোমবার, ১৭:১১


প্রিন্ট

কোটা সংস্কার নিয়ে আন্দোলন স্থগিতের সময়সীমা সোমবার শেষ হলেও কোটা বাতিল বা সংস্কারের প্রজ্ঞাপন জারির বিষয়ে কোনো অগ্রগতি নেই বলে জানিয়েছেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম।
সোমবার প্রধানমন্ত্রীর শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠক শেষে সচিবালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব তথ্য জানান।
এ সময় মন্ত্রিসভা বৈঠকে কোটা নিয়ে কোনো আলোচনা হয়েছে কি-না বা কোটার প্রজ্ঞাপন জারির অগ্রগতি কতদূর- জানতে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম বলেন, প্রধানমন্ত্রীর কাছ থেকে কোটা সংক্রান্ত বিষয়ে এখনও পর্যন্ত কোনও দিকনির্দেশনা পাইনি। আর এ কারণে এই সংক্রান্ত কোনও অগ্রগতিও হয়নি।
যে অবস্থায় ছিল, তাই। তবুও অল্প সময়ের মধ্যেই এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি হবে বলে আমি আশাবাদী। তবে মন্ত্রিপরিষদ সচিবকে প্রধান করে যে কমিটি গঠিত হবে, সেই কমিটিতে কে কে থাকবেন তা ঠিক করবে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়।
শিক্ষার্থীরা ৭ মে’র মধ্যে কোটা নিয়ে প্রজ্ঞাপন জারির সময় বেঁধে দিয়ে ওই পর্যন্ত আন্দোলন কর্মসূচি প্রত্যাহার করেছে। এ বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, আমাদের কাছে এখনও পৌঁছেনি। আনুষ্ঠানিকভাবে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়কে বলেছি এটার অগ্রগতি আমাদের জানানোর জন্য আমাদের কী করণীয়। কোটা নিয়ে আপনারা কোনো বৈঠক করেছেন কি না- এ বিষয়ে তিনি বলেন, না, বৈঠক হয়নি।
তবে কোটা নিয়ে প্রজ্ঞাপন জারির প্রক্রিয়াটা কি হবে- জানতে চাইলে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, জনপ্রশাসন থেকে একটা প্রজ্ঞাপন (কমিটি গঠনের) জারি হলে আমাদের কাছে আসবে, আমরা তখন কমিটি নিয়ে বসব। তবে শিগগিরই কমিটি গঠনের প্রজ্ঞাপন জারি করা হবে।
উল্লেখ্য, এর আগে ১১ এপ্রিল জাতীয় সংসদ অধিবেশনে নির্ধারিত প্রশ্নোত্তর পর্বে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, কোটা নিয়ে যখন এতকিছু, তখন কোটাই থাকবে না। কোনও কোটারই দরকার নেই।
সরকারি চাকরিতে কোটা ব্যবস্থা সংস্কারের দাবিতে দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ও চাকরিপ্রার্থীদের লাগাতার আন্দোলন ও এ আন্দোলনের এক পর্যায়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্যের বাসভবনে হামলা এবং আন্দোলনকারীদের ওপর পুলিশি অ্যাকশনসহ বিভিন্ন কারণে অস্থিরতা সৃষ্টি হয়। এসব ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে আন্দোলনকারীদের সঙ্গে সরকারের প্রতিনিধি দলের বৈঠকের হয়। এরপর জাতীয় সংসদ অধিবেশনে নির্ধারিত প্রশ্নোত্তর পর্বে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কোটা বাতিলের ঘোষণা দেন।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫