ঢাকা, সোমবার,২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯

উপমহাদেশ

কর্ণাটকে চলছে ভোট গ্রহণ, ফল ১৫ মে

বাসস

১২ মে ২০১৮,শনিবার, ১২:৩৯


প্রিন্ট
কর্ণাটকে চলছে ভোট গ্রহণ, ফল ১৫ মে

কর্ণাটকে চলছে ভোট গ্রহণ, ফল ১৫ মে

ভারতের দক্ষিণাঞ্চলীয় রাজ্য কর্নাটকে শনিবার ভোট গ্রহণ শুরু হয়েছে। এই নির্বাচনের মাধ্যমে আগামী বছরের সাধারণ নির্বাচনের ফলাফলের একটি আভাস পাওয়া যাবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।
কঠোর নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে স্থানীয় সময় সকাল ৭টায় ভোট গ্রহণ শুরু হয়েছে। সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত ভোট গ্রহণ করা হবে।  খবর সিনহুয়া’র।

এই নির্বাচনে আঞ্চলিক বিধানসভার ২২৪টি আসনের মধ্যে ২২২টি আসনের জন্য প্রার্থীদের মধ্যে প্রতিদ্বন্দ্বিতা হচ্ছে। এই বিধানসভা ভারতের প্রধান বিরোধী দল কংগ্রেস পার্টির নেতৃত্বে পরিচালিত হচ্ছে। একজন প্রার্থীর মৃত্যুর কারণে একটি আসনের ভোট বাতিল করা হয়েছে। নির্বাচন কমিশন আরেকটি আসনের ভোট গ্রহণ স্থগিত করেছে।

ক্ষমতা ধরে রাখতে পারলে এই রাজ্যে কংগ্রেসের ভিত আরো মজবুদ হবে । অন্যদিকে, বিজেপি জিতলে নরেন্দ্র মোদীর কংগ্রেস-মুক্ত ভারতের স্বপ্ন আরেক ধাপ এগিয়ে যাবে।

এদিকে কংগ্রেসের অভিযোগ, দুর্নীতিতে অভিযুক্ত নেতারাই বিজেপির প্রথম সারিতে রয়েছেন।
জেল ফেরত ইয়েদুরাপ্পা গেরুয়া শিবিরের মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী। খনি কেলেঙ্কারিতে অভিযুক্ত হয়েও তিনি এবারের নির্বাচনে টিকিট পেয়েছেন।

অন্যদিকে, লিঙ্গায়েত ও বীরশৈবদের ধর্মীয় সংখ্যালঘুর স্বীকৃতি দিয়ে বাজিমাত করার চেষ্টা করেছে কংগ্রেসের। কৃষকের আত্মহত্যা, কৃষিঋণ মওকুবও তাদের ভোটের ইস্যু।

২০১৪-র লোকসভা নির্বাচনে কর্ণাটকে ১৩২টি বিধানসভা আসনে এগিয়েছিল বিজেপি। কংগ্রেস ৭৭টি আসনে এবং জেডি(এস) ১৫টি আসনে এগিয়েছিল। মোদী হাওয়ায় প্রায় ৪৩ শতাংশ ভোট পায় বিজেপি। কংগ্রেস পায় ৪০ শতাংশ ভোট। একধাক্কায় অর্ধেক হয়ে যায় জেডি(এস)-এর প্রাপ্ত ভোটের হার। তবে, ২০১৩-র বিধানসভা নির্বাচনে ২২৪টি আসনের মধ্যে ১২২টি আসন পেয়ে কর্নাটক দখল করে কংগ্রেস। 

বিজেপি এবং জেডি(এস), দু'দলই পায় ৪০ আসন। প্রায় ৩৭ শতাংশ ভোট পায় কংগ্রেস। বিজেপি এবং জেডি(এস) ২০ শতাংশ ভোট। ইতিহাস বলে ১৯৮৫ সালের পর থেকে পরপর দু'বার কোনও দল কণাটকে জেতেনি।

এই পরিস্থিতিতে জেডি (এস)- এর হাতেই সরকার গঠনের চাবিকাঠি যেতে পারে বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫