ঢাকা, সোমবার,২১ অক্টোবর ২০১৯

আমার ঢাকা

ডিএনসিসির ঝাড়ুদার গাড়ি

১৫ মে ২০১৮,মঙ্গলবার, ০০:০০


প্রিন্ট

রাজধানীর সড়ক পরিচ্ছন্ন করার এই প্রথাগত পদ্ধতি থেকে বেরিয়ে এসে ঢাকার রাস্তায় নতুন একটি স্বয়ংক্রিয় গাড়ি নামিয়েছে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি)। ‘মেকানিক্যাল রোড সুইপার’ নামে পরিচিত এই গাড়িটি কাজ করছে রাতের নিভৃতে। ডিএনসিসির কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, প্রায় পাঁচ কোটি টাকা ব্যয়ে থাইল্যান্ড থেকে আমদানি করা এই গাড়িটি ডিএনসিসি এলাকার দু’টি রুটে পরীক্ষামূলকভাবে চালু করা হয়েছে। একটি রুট সার্ক ফোয়ারা থেকে বিজয় সরণী হয়ে বনানী ওভারপাস পর্যন্ত। অন্যটি বনানীর কামাল আতাতুর্ক অ্যাভিনিউ, গুলশান অ্যাভিনিউ, শুটিং ক্লাব থেকে তেজগাঁও লিঙ্ক রোড ও গুলশান ২ নম্বর গোলচত্বর হয়ে বাড্ডা নতুন বাজার পর্যন্ত। গত ৫ মার্চ থেকে ৩ মে পর্যন্ত ৫৮ দিনের মধ্যে ৪১ দিনে এই দু’টি রুটে স্বয়ংক্রিয় গাড়িটি মোট এক লাখ ৩৩ হাজার ২৮২ কিলোগ্রাম আবর্জনা অপসারণ করেছে। এ আবর্জনা অপসারণ করতে দুই হাজার ১০ জন পরিচ্ছন্নতাকর্মীর দরকার হতো। পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রমে গতি আনার জন্য আগামী অর্থবছরে এ ধরনের আরো তিনটি গাড়ি আমদানির পরিকল্পনা করছে ডিএনসিসি।
ডিএনসিসির প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা কমোডর আবদুর রাজ্জাক বলেন, মরহুম মেয়র আনিসুল হক তার জীবদ্দশায় এই আধুনিক যন্ত্রটি ব্যবহারের উদ্যোগ নেন। সব প্রক্রিয়া শেষে গত ফেব্র“য়ারি মাসে রোড সুইপারটি ডিএনসিসির হাতে পৌঁছায়। সড়ক থেকে ময়লা-আবর্জনা শুষে নেয়ার জন্য গাড়িটিতে আছে দু’টি শোষণ পাইপ। ইঞ্জিনের এই অংশটি চালু করার সাথে সাথে পাইপের মাধ্যমে আবর্জনা ওপরের ট্যাঙ্কারে জমা হয়। এর ধারণক্ষমতা ছয় টন। এ ছাড়া গাড়ির সাথে থাকা আরেকটি ট্যাঙ্ক থেকে সড়কে পানি ছিটানোর ব্যবস্থাও আছে।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫