ঢাকা, বৃহস্পতিবার,২০ জুন ২০১৯

জাতীয়

কোটা বাতিলের প্র্রজ্ঞাপনের দাবিতে শাহবাগ মোড়ে বিক্ষোভ : তীব্র যানজট

নিজস্ব প্র্রতিবেদক

১৪ মে ২০১৮,সোমবার, ২২:৩৯


প্রিন্ট
কোটা সংস্কার দাবিতে শাহবাগে আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের অবস্থান

কোটা সংস্কার দাবিতে শাহবাগে আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের অবস্থান

সরকারি চাকরিতে কোটাব্যবস্থা বাতিলে প্র্রধানমন্ত্রীর দেয়া ঘোষণার প্র্রজ্ঞাপন জারির দাবিতে শাহবাগ মোড় আটকে বিক্ষোভ করছেন আন্দোলনকারীরা।


গতকাল ১১টা থেকে আন্দোলনকারীরা শাহবাগ মোড়ে অবস্থান নিয়ে নিজেদের দাবির পক্ষে বিভিন্ন সেøাগান দেন।
শাহবাগ মোড় আটকে থাকায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি, এলিফেন্ট রোড, মৎস্য ভবন, বাংলামোটর এলাকায় তীব্র যানজট দেখা দেয়।


মৎস্য ভবন থেকে শাহবাগ পর্যন্ত সড়কে যান চলাচল বন্ধ থাকে। প্রেস ক্লাব থেকে হাইকোর্ট হয়ে আসা যানবাহনকে মৎস্য ভবন মোড় থেকে ঘুরিয়ে দেয় পুলিশ। মালিবাগ ও কাকরাইল মোড়ে সৃষ্টি হয় যানজট।


ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে শাহবাগ হয়ে আসা যানবাহনকে শাহবাগ থানার সামনে আটকে দেয়া হয়। গাড়িগুলো নীলক্ষেত মোড়, কাঁটাবন ঘুরে আসার চেষ্টা করার কারণে নীলক্ষেত মোড়েও যানজট সৃষ্টি হয়।


মিরপুর, গাবতলী এবং উত্তরামুখী যানবাহনের চাপ বেড়েছে রমনা পার্কের পাশের সড়কে। কাকরাইল, হেয়ার রোড এবং রূপসী বাংলা হোটেলের সামনে যানজট লাগে।


শাহবাগের দিক থেকে যানবাহন কম আসায় দুর্ভোগে পড়েন যাত্রীরা। বেলা সাড়ে ৩টায় বাংলামোটর, কাওরানবাজার ও ফার্মগেটে অপেক্ষায় থাকা মানুষের ভিড় দেখা গেছে। বেশি ভোগান্তিতে পড়েছেন মিরপুরের যাত্রীরা।


বিকেল ৪টায় ফার্মগেটে মিরপুরের বাসের অপেক্ষায় থাকা কায়সার আহমেদ বলেন, প্রায় ৪০ মিনিট ধরে বাসের অপেক্ষায় আছেন তিনি। ওই দিক থেকে গাড়ি আসছে না। মাঝে মধ্যে একটা গাড়ি এলে তাতে ওঠার জন্য ধাক্কাধাক্কি লেগে যাচ্ছে।


ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) রমনা জোনের উপকমিশনার মারুফ হোসেন সরদার বলেন, ‘আমরা ধৈর্য ধরে আছি। তাদের বোঝানোর চেষ্টা করছি।’


এর আগে সকাল সাড়ে ১০টায় আন্দোলনকারীরা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় লাইব্রেরির সামনে জড়ো হয়ে মিছিল নিয়ে কলা ভবন, মল চত্বর, ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদ, প্রশাসনিক ভবন, আইইআর, আইন অনুষদ, কার্জন হল ঘুরে প্রদক্ষিণ করেন তারা। পূর্বঘোষিত ধর্মঘটের কর্মসূচি পালনের অংশ হিসেবে তারা কলাভবনের গেটে তালা লাগান।


আন্দোলনকারীদের মঞ্চ বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক নুরুল হক নূর বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী সংসদে ঘোষণা দিয়েছেনÑ কোটা বাতিল। আমরা মেনে নিয়েছি। ওই ষোঘণার প্রর ৩৩ দিন পেরিয়ে গেছে, কিন্তু এখনো কোনো প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়নি। এই ক্ষেত্রে ছাত্রসমাজের আশঙ্কা প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা বাস্তবায়ন হবে কি না।’


৭ মের মধ্যে প্রজ্ঞাপন জারি করার বিষয়ে সরকারের পক্ষ থেকে আশ্বাস দেয়া হয়েছিল উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘ডেডলাইন পার হয়ে যাওয়ার পরও আমরা বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করেছি; কিন্তু সরকার কর্ণপাত করেনি। তাই সকাল থেকে সারা দেশে আমরা ধর্মঘট ও বিক্ষোভ কর্মসূচি প্রালন করছি এবং কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে শাহবাগে অংশ নিয়েছি।’


ধর্মঘটের কারণে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সেমিস্টার ফাইনাল এবং সাইকোলজি বিভাগের মিডটার্ম পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়নি। তবে ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের সেমিস্টার ফাইনাল অনুষ্ঠিত হয়েছে।


রাবি সংবাদদাতা জানান, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) ক্লাস, পরীক্ষা এবং পরিবহন বন্ধ করে ধর্মঘট করেছেন শিক্ষার্থীরা। গতকাল সকাল থেকে কোটা সংস্কার আন্দোলনকারী সংগঠটির উদ্যোগে এই কর্মসূচি পালিত হয়।
জানা গেছে, রাবির বেশির ভাগ বিভাগের ক্লাস-পরীক্ষা হয়নি। পদার্থবিজ্ঞান ও পরিসংখ্যান বিভাগের পূর্বনির্ধারিত পরীক্ষাও ধর্মঘটের জন্য স্থগিত করা হয়েছে। রাবির শিক্ষার্থীরা সব রুটের বাস চলাচল বন্ধ করে দেন। এতে ক্যাম্পাসে উপস্থিতির হার ছিল খুবই কম।


বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার রক্ষা পরিষদের রাবি শাখার (ভারপ্রাপ্ত) আহ্বায়ক মোরশেদুল আলম বলেন, ‘কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে আমাদের ক্যাম্পাসে সুষ্ঠুভাবে ছাত্র ধর্মঘট চলছে। আমার জানা মতে কোনো বিভাগে ক্লাস পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়নি। আমরা আমাদের অধিকার আদায় না হওয়া পর্যন্ত আমাদের এ শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি চালিয়ে যাবো।’


চট্টগ্রাম ব্যুরো জানায়, কোটা বাতিলের প্রজ্ঞাপন জারির দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভে শাটল ট্্েরন নগরী থেকে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্দেশ ছেড়ে যেতে পারেনি। গতকাল সোমবার সকাল ৭টা থেকে বেলা ১টা পর্যন্ত নগরীর ষোলশহর রেলস্টেশন অবরোধ করে রাখে আন্দোলনকারীরা। দুপুরে আন্দোলন সাময়িক স্থগিত ঘোষণার পর বিকেল থেকে ট্্েরন চলাচল স্বাভাবিক হয়েছে।


চট্টগ্রামের আহ্বায়ক ও চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক মোহাম্মদ আরজু জানান, মঙ্গলবার ষোলশহর স্টেশনে সকাল ৭টা থেকে আবারো আন্দোলন হবে। প্রজ্ঞাপন জারি না হওয়া পর্যন্ত এ আন্দোলন অব্যাহত থাকবে।


রংপুর অফিস জানায়, কোটা বাতিলে প্রধানমন্ত্রীর শেখ হাসিনার প্রতিশ্রুত প্রজ্ঞাপন জারির দাবিতে গতকাল ক্লাস ও পরীক্ষা বর্জন করে বিক্ষোভ করেছেন রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়, কারমাইকেল কলেজ ও রংপুর সরকারি কলেজের শিক্ষার্থীরা। এ সময় মুহুর্মুহ সেøাগানে উত্তাল হয়ে উঠে রংপুরের এসব উচ্চ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান।


সকালে রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা ক্লাস ও পরীক্ষা বর্জন করে সব একাডেমিক ভবনের সামনে অবস্থান নেন।

বেলা ১১টায় একাডেমিক ভবন-৩ এর সামনে একটি বিক্ষোভ নিয়ে ক্যাম্পাসের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করেন। পরে তারা দেবদারু তলায় অবস্থান নিয়ে সমাবেশ করে। সমাবেশে বক্তব্য রাখেনÑ বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয় শাখার আহ্বায়ক রোকনুজ্জামান রোকন, যুগ্ম আহ্বায়ক ওয়াদুদ সাদমান, সমন্বয়ক প্রিন্স, মইনুল ইসলাম প্রমুখ।


সিলেট ব্যুরো জানায়, কোটা বাতিলের প্রজ্ঞাপন জারির দাবিতে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্র ধর্মঘট করেছেন সাধারণ শিক্ষার্থীরা। গতকাল সকাল ৮টায় বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের ডাকা ছাত্র ধর্মঘটের সাথে একাত্মতা পোষণ করে শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকে অবস্থান নেন।


পরে সকাল সাড়ে ১০টায় প্রধান ফটক হতে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের হয় যা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগার ভবনের সামনে এসে একটি সমাবেশে মিলিত হয়।


এ দিকে, বিভিন্ন বিভাগে চলমান সেমিস্টার ফাইনাল পরীক্ষা ধর্মঘটের আওতামুক্ত থাকায় বিভিন্ন বিভাগে ক্লাস, পরীক্ষা অব্যাহত ছিল। এ ছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়ের বাস চলাচলও স্বাভাবিক ছিল।


বরিশাল ব্যুরো জানায়, প্রধানমন্ত্রীর কোটা পদ্ধতি বাতিলের ঘোষণা প্রজ্ঞাপন আকারে জারির দাবিতে ক্লাস ও পরীক্ষা বর্জন করে গতকাল বিক্ষোভ সমাবেশ করেছেন বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় (ববি) শিক্ষার্থীরা।


বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে বেলা ১১টায় বিশ^বিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসে অনুষ্ঠিত সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের শেষবর্ষের ছাত্র শফিকুল ইসলাম। অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেনÑ আইন বিভাগের শেষবর্ষের ছাত্রী তনুশ্রী রায়, রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের চতুর্থ বর্ষের ছাত্র এনাম, জহিরুল ইসলাম প্রমুখ।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫