ঢাকা, বুধবার,২৩ অক্টোবর ২০১৯

চট্টগ্রাম

দাগনভূঞার জায়লস্কর ইউনিয়ন পরিষদ ভবন ৯ বছরেই জরাজীর্ণ

দাগনভূঞা (ফেনী) সংবাদদাতা

১৮ মে ২০১৮,শুক্রবার, ১৬:৪০


প্রিন্ট

ফেনীর দাগনভূঞা উপজেলার জায়লস্কর ইউনিয়ন পরিষদ ভবন ৯ বছরেই জরাজীর্ণ হয়ে পড়েছে। চুন-সুরকি উঠে মাঝেমধ্যেই ছাদের পলেস্তরা খসে পড়ায় আতংকে থাকেন সংশ্লিষ্টরা।

ইউপি সূত্র জানায়, ২০০৭-০৮ অর্থবছরে ৩৮ লাখ টাকা ব্যয়ে ভবনটি নির্মাণ করা হয়। ২০১০ সালের ফেব্রুয়ারিতে তৎকালীন বিএনপি দলীয় সংসদ সদস্য মোহাম্মদ মোশাররফ হোসেন ভবনের উদ্বোধন করেন। দ্রুত জরাজীর্ণ হয়ে পড়ায় ভবনটি নির্মাণে অনিয়ম ও দূর্নীতির অভিযোগ উঠেছে।
সরেজমিন গিয়ে দেখা গেছে, ভিতরে প্রবেশ করলে এটাকে পরিত্যক্ত ভবন মনে হয়। সংস্কারের অভাবে ভবনটি এখন ব্যবহারের অনুপোযোগী হয়ে পড়েছে। ভবনের বিভিন্ন অংশে ফাটল দেখা দিয়েছে। ভবন থেকে সুরকি ঝরে পড়ছে। ছাদের পলেস্তরা খসে পড়ছে। হল রুমের অবস্থা বেশি নাজুক। গ্রাম্য আদালতের সালিশ কার্যক্রম কিংবা পরিষদের সভায় আতংকগ্রস্থ থাকেন উপস্থিত লোকজন। এমন পরিস্থিতিতে ভূমিকম্প সহ যে কোন সময় বড় ধরনের দূর্ঘটনারও আশংকা রয়েছে। গত মঙ্গলবার হল রুমে আয়োজিত পরিষদের বাজেট অনুষ্ঠানেও একাধিক বক্তা ভবনটির জীর্ণদশার ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সাইফুল ইসলাম ভূঞার দৃষ্টি আকর্ষন করেছেন।

জায়লস্কর ইউপি চেয়ারম্যান মামুনুর রশিদ মিলন জানান, ভবনটি নির্মাণের সময় নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহার করায় গত ৯ বছরেই ব্যবহার অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। যে কোন সময় বড় ধরনের দুর্ঘটনারও আশংকা রয়েছে। এজন্য তিনি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সুদৃষ্টি কামনা করেন।

উপজেলা উপ-সহকারি প্রকৌশলী ইকবাল হোসেন জানান, তারা বিষয়টি জেনেছেন। ইতিমধ্যে ভবনটি সংস্কারের জন্য উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে চিঠি দিয়েছেন।

জানতে চাইলে দাগনভূঞা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সাইফুল ইসলাম ভূঞা বলেন, উপজেলা প্রকৌশলীকে ভবন পরিদর্শন করতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। তার পরিদর্শন প্রতিবেদনের উপর নির্ভর করে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়কে জানানো হবে।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫