ঢাকা, সোমবার,২২ জুলাই ২০১৯

স্বাস্থ্য

শীতকালে বিশেষ যত্ন

ডা: ওয়ানাইজা

০৫ জানুয়ারি ২০১৬,মঙ্গলবার, ২০:২২


প্রিন্ট

শীত হচ্ছে একটি শুষ্ক ঋতু। আর এই শীতকালে আমাদের শরীর স্বাস্থ্যের দিকে বিশেষ নজর রাখা প্রয়োজন। সর্দি, ঠাণ্ডা, কাশি থেকে শুরু করে ত্বক ও চুলের বিভিন্ন সমস্যা দেখা দেয় শীতকালে। তবে এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় সতর্কতা গ্রহণের মাধ্যমে আমরা শীতকালেও সুন্দর ও লাবণ্যময় থাকতে পারি। অনেকের শীতকালজুড়ে সর্দি, কাশি, ঠাণ্ডা লেগেই থাকে। অসতর্কতার কারণে এটা হতে পারে। অবশ্য অনেকের কোল্ড অ্যালার্জি থাকতে পারে।

যাদের কোল্ড অ্যালার্জির প্রবণতা রয়েছে, তারা অবশ্যই শীতকাল আসার আগেই চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী প্রতিরোধ ব্যবস্থা নেবেন। সাধারণ সর্দি, কাশির ব্যাপারেও কিছু সতর্কতা অবলম্বন করা প্রয়োজন। যেমন- হালকা কাশি হলেই গরম তরল পানীয় পান করা যেতে পারে। এ ছাড়া সর্দিতে নাক বন্ধ থাকলে গরম পানিতে মেনথলের টুকরো ফেলে সেই ভাপ নাকে টেনে নিলে ভালো হয়। গরম পানিতে লবণের দানা ফেলে কুলকুচা বা গার্গলও করা যেতে পারে। এসব কিছুর পরও সর্দি, ঠাণ্ডার পরিবর্তন না হলে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নেবেন। আমাদের দেশে দুপুরের দিকে গরম থাকলেও সন্ধ্যার পর ঠাণ্ডা পড়ে। তাই হয়তো অনেক সময় গরম জামাকাপড় না পরেই আমরা বের হই। কিন্তু এ ক্ষেত্রে গরম কাপড় না পরলেও সাথে রাখা খুবই প্রয়োজন। শিশুদের ক্ষেত্রে খালি পায়ে হাঁটা মোটেও ঠিক নয়। মোজা পরা প্রয়োজন। এ ছাড়া শিশুদের এ সময় প্রতিরোধ হিসেবে জিঙ্ক সিরাপ খাওয়ানো যেতে পারে।

এবার আসা যাক ত্বক ও চুলের কথায়। শীতকালে ত্বক শুষ্ক হয়ে ওঠে। কারো কারো ঠোঁট, হাত ও পায়ের তালু ফেটে যায়। শুষ্ক ঠোঁট বারবার জিভ দিয়ে ভেজানোর অভ্যাস অনেকেরই থাকে। এতে ঠোঁটের ক্ষতি হয়। ঠোঁটে নিয়মিত ভেসলিন ব্যবহার করা দরকার। এ ছাড়া মহিলারা লিপগ্লস ব্যবহার করতে পারেন। ম্যাট লিপস্টিক এ সময় না ব্যবহার করাই ভালো। সপ্তাহে দুই দিন সারা শরীরে অলিভ অয়েল লাগানো প্রয়োজন। এ ছাড়া গোসলের পানিতে ১৫-২০ ফোঁটা তেল ও ১৫-২০ ফোঁটা গ্লিসারিন মিশিয়ে ব্যবহার করলে ত্বক মসৃণ হয়। রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে হ্যান্ড অ্যান্ড বডিলোশন ব্যবহার করলেও ত্বক খসখসে হয় না। হাত পায়ের তালু ফাটার ক্ষেত্রে গ্লিসারিনের কার্যকারিতা অদ্বিতীয়। বেশি ফাটলে অবশ্য চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। মনে রাখবেন শীতকালে ত্বক আপনার কাছ থেকে বেশি যত্ন প্রত্যাশী। তাই ত্বকের প্রতি নজর দিন। কমলালেবুর খোসা শুকিয়ে গুঁড়ো করে দুধের সাথে মিশিয়ে তা স্ক্রাবার হিসেবে সারা শরীরে ঘষে ঘষে ব্যবহার করতে পারেন, এতে বাড়তি ময়লা পরিষ্কার হয়।
শীতকালে চুলেরও বিশেষ যত্ন নিতে হয়। চুল একটু ছেঁটে নিলে ভালো। এ ছাড়া চুল নিয়মিত পরিষ্কার রাখবেন। টকদই, ডিম ইত্যাদি কন্ডিশনার হিসেবে ব্যবহার করবেন। এ ছাড়া কন্ডিশনার কিনতেও পাওয়া যায়। শ্যাম্পু করার আগে কুসুম গরম তেল মালিশ মাথার ত্বক ও চুলের জন্য ভালো। সপ্তাহে এক দিন রিঠা ভেজানো পানি দিয়ে চুল ধুলে চুল চকচকে ও ঝলমলে হয়। কিছু সতর্কতা ও নিয়ম মেনে স্বাস্থ্যের যত্ন নিলে শীতকালে আপনিও হয়ে উঠবেন লাবণ্যময়ী ও আকর্ষণীয়।

লেখিকা : সহযোগী অধ্যাপিকা, ফার্মাকোলজি অ্যান্ড থেরাপিউটিক্স, ঢাকা ন্যাশনাল মেডিক্যাল কলেজ।
চেম্বার : দি বেস্ট কেয়ার হাসপাতাল অ্যান্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টার, ২০৯/২, এলিফ্যান্ট রোড, ঢাকা। ফোন : ০১৬৮২২০১৪২৭

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫