Naya Diganta

নড়াইলে দিঘলিয়া ইউপি উপ-নির্বাচনে আ’লীগ প্রার্থী নির্বাচিত

ফরহাদ খান, নড়াইল

১৫ মে ২০১৮,মঙ্গলবার, ১৯:৪৪


নড়াইলের দিঘলিয়া ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) উপ-নির্বাচনে আ’লীগ প্রার্থী নীনা ইয়াছমিন নির্বাচিত হয়েছেন। তিনি নিহত চেয়ারম্যান লতিফুর রহমান পলাশের স্ত্রী। নৌকা প্রতীকে তিনি নির্বাচন করেন।
মঙ্গলবার সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত এ ইউনিয়নে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী নীনা ইয়াছমিন ৫ হাজার ৫৬৫ পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী দিঘলিয়া ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি স ম ওহিদুর রহমান (আনারস প্রতীক) পেয়েছেন ৩ হাজার ১৩৭ ভোট, অপর দুই প্রার্থী জাতীয় শ্রমিক লীগ নেতা সাহিদুল আলম (চশমা প্রতীক) এক হাজার ৮০২ ভোট এবং বিএনপি মনোনীত প্রার্থী এস এম মাকছুদুল হক (ধানের শীষ) ৩২৮ ভোট পেয়েছেন। লোহাগড়া উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা সেলিম রেজা ফলাফলের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
জানা যায়, গত ১৫ ফেব্রুয়ারি দুপুর পৌনে ১২টার দিকে লোহাগড়া উপজেলা পরিষদ চত্বরে দিঘলিয়া ইউপি চেয়ারম্যান উপজেলা আওয়ামী লীগের শ্রম বিষয়ক সম্পাদক লতিফুর রহমান পলাশকে (৪৮) গুলি করে ও কুপিয়ে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা।
২০১৬ সালের নির্বাচনে আ’লীগের মনোনয়ন চেয়ে ব্যর্থ হয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে ইউপি চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন পলাশ। এ হত্যাকান্ডের ঘটনায় গত ১৭ ফেব্রুয়ারি রাতে নিহত পলাশের বড় ভাই জেলা পরিষদের সদস্য মুক্তিযোদ্ধা সাইফুর রহমান হিলু বাদী হয়ে জেলা আ’লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শরীফ মনিরুজ্জামান মনি, দিঘলিয়া ইউনিয়ন আ’লীগ সভাপতি স ম ওহিদুর রহমানসহ (চেয়ারম্যান প্রার্থী) ১৫ জনের নামে লোহাগড়া থানায় মামলা দায়ের করেন। এরপর গত ৮ এপ্রিল দিঘলিয়া ইউনিয়নের উপ-নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হয়। নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন নিহত লতিফুর রহমান পলাশের স্ত্রী আ’লীগ মনোনীত প্রার্থী নীনা ইয়াছমিন, বিএনপি প্রার্থী এস এম মাকছুদুল হক, স্বতন্ত্র প্রার্থী স ম ওহিদুর রহমান ও অপর স্বতন্ত্র প্রার্থী সাহিদুল আলম। পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন পিপিএম বলেন, সুষ্ঠু সুন্দর ভাবে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

 

Logo

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,    
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫