Naya Diganta

ইসরাইলি হত্যাযজ্ঞ ঘৃণ্য কাজ, গণহত্যার আন্তর্জাতিক তদন্তের আহ্বান

আনাদোলু এজন্সি ও বিবিসি

১৯ মে ২০১৮,শনিবার, ১০:৪৮


ইসরাইলি হত্যাযজ্ঞ ঘৃণ্য কাজ, গণহত্যার আন্তর্জাতিক তদন্তের আহ্বান

ইসরাইলি হত্যাযজ্ঞ ঘৃণ্য কাজ, গণহত্যার আন্তর্জাতিক তদন্তের আহ্বান

ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ গাজায় নিরস্ত্র ফিলিস্তিনি বিক্ষোভকারীদের হত্যার ঘটনাকে ‘ঘৃণ্য কাজ’ হিসেবে বর্ণনা করে ইসরাইলের নিন্দা জানিয়েছেন। বুলগেরিয়ার রাজধানী সোফিয়ায় ইউরোপীয় ইউনিয়ন-পশ্চিমাঞ্চলীয় বলকান রাষ্ট্রগুলোর এক সামিট শেষে ফরাসি প্রেসিডেন্ট এ কথা বলেন।

ম্যাক্রোঁ বলেন, এই মুহূর্তে আমার অবস্থান খুব স্পষ্ট: বেসামরিক ব্যক্তিদের হতাহতের ঘটনা বিশেষ করে সোমবারের ঘটনায় ফ্রান্স ঘৃণ্য কাজের নিন্দা জানিয়েছে। একইসাথে ফ্রান্স শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ করার আহ্বান এবং হামাস ও অন্যান্য আন্দোলনকারীদের বিবৃতি যা ইসরাইলের নিরাপত্তাকে হুমকিতে ফেলে সেটির কঠোর নিন্দা জানিয়েছে। ফিলিস্তিনিদের আন্দোলনও যেন উগ্র না হয় সেটিও খেয়াল রাখতে হবে। ইসরাইলিদেরও মানবাধিকার রয়েছে। তাদের নিরাপদে বাঁচার অধিকার রয়েছে।

অন্যদিকে গাজায় ইসরাইলি হত্যাযজ্ঞের বিষয়ে নিরপেক্ষ তদন্তের আহ্বানের প্রতি সমর্থন জানিয়েছেন জাতিসঙ্ঘের মানবাধিকার বিষয়ক প্রধান জেইদ বিন রাদ জেইদ আল হুসেইন। তিনি বলেছেন, ফিলিস্তিনের গাজা সীমান্তে ইসরাইল পুরোপুরি নির্বিচার বলপ্রয়োগ করেছে। এ হত্যাকাণ্ডের আন্তর্জাতিক নিরপেক্ষ তদন্ত হওয়া উচিত বলে তিনি মত প্রকাশ করেছেন। 

শুক্রবার সুইজারল্যান্ডের জেনেভায় জাতিসঙ্ঘের মানবাধিকার কাউন্সিলের বৈঠকে তিনি এসব কথা বলেন। তিনি গাজা অবরোধ প্রত্যাহারের আহ্বান জানিয়ে বলেন, গাজাবাসীরা বিষাক্ত এক বস্তিতে আটকা পড়েছে। তাদেরকে মৌলিক অধিকারগুলো থেকে বঞ্চিত করা হচ্ছে। নাকবা দিবসে ইসরাইল গাজায় যাদের হত্যা করেছে তাদের অনেকেই একেবারেই নিরস্ত্র ছিল। ইসরাইল গাজায় আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘন করেছে। আন্তর্জাতিক আইন অনুযায়ী দখলদার শক্তি হিসেবে ইসরাইলের গাজাবাসীর সার্বিক অবস্থার প্রতি দায়িত্ব রয়েছে।

গাজায় ইসরাইলি বর্বরতার ব্যাপারে সুষ্ঠু তদন্তের জন্য একটি দল পাঠানোর ব্যাপারে জাতিসঙ্ঘের মানবাধিকার বিষয়ক সংস্থা ভোট করেছে। আন্তর্জাতিক যুদ্ধাপরাধ তদন্তকারীদল সেখানে গিয়ে নমুনা সংগ্রহ করবেন। তদন্তের জন্য স্বাধীন ও আন্তর্জাতিক কমিশন গঠনের ব্যাপারে জাতিসঙ্ঘের মানবাধিকার বিষয়ক সংস্থার ২৯ সদস্য শুক্রবারের ওই ভোটে অংশ নেয়। তাতে দু'জন সদস্য বিরোধিতা করেছে এবং ১৪ সদস্য ভোট প্রদান থেকে বিরত থেকেছে। ৩০ মার্চ থেকে ইসরাইলি বাহিনীর সহিংসতা ও নির্যাতনের যাবতীয় অভিযোগ তদন্ত করবেন তদন্তদলের সদস্যরা।

 

Logo

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,    
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫