ঢাকা, মঙ্গলবার,০২ জুন ২০২০

তুরস্ক

সিরিয়াবাসীদের উদ্ধার করবই, ইরাকেও অভিযান শুরু হয়েছে: এরদোগান

নয়া দিগন্ত অনলাইন

২৭ মার্চ ২০১৮,মঙ্গলবার, ১৫:০৯ | আপডেট: ২৭ মার্চ ২০১৮,মঙ্গলবার, ১৫:৩২


প্রিন্ট
সিরিয়াবাসীদের উদ্ধার করবই, ইরাকেও অভিযান শুরু হয়েছে: এরদোগান

সিরিয়াবাসীদের উদ্ধার করবই, ইরাকেও অভিযান শুরু হয়েছে: এরদোগান

বুলগেরিয়ার শহর ভারনায় তুর্কি-ইইউ সম্মেলনে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইপ এরদোগান বলেছেন, ইউরোপ যদি তার সম্প্রসারণ নীতি থেকে তুরস্ককে বাদ দিয়ে দেয়, তবে তারা বড় ধরনের ভুল করবে। তাদের (ইউরোপীয় ইউনিয়ন) উচিৎ তুরস্ককে সমর্থন করা। আমরা একটি কঠিন সময় পার করছি। আমরা সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে সংগ্রাম করছি। এ কাজের ইউরোপের উচিৎ হবে আমাদের সহযোগিতা করা।

তিনি আরো বলেন, সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে আমাদের অভিযান কেবল সিরীয় ও তুরস্কের নিরাপত্তাই নিশ্চিত করবে না, তা ইউরোপকেও নিরাপত্তা বলয়ের মধ্যে নিয়ে যাবে। এই স্পর্শকাতার বিষয়ে এখন আমরা ইউরোপের সমর্থন চাচ্ছি। অযথা সমালোচনা কিংবা গলাবাজি না করে তাদের উচিত আমাদের সমর্থনে এগিয়ে আসা। এতে ইউরোপ ও তুরস্কের মধ্যে আস্থা ফিরে আসবে। আশা করছি সঙ্কটগুলো পেছনে ফেলে আমরা সামনে এগিয়ে যেতে পারবো।

এরদোগান বলেছিলেন, সিরিয়ার আফরিনে অভিযানের পর এবার ইরাকের সিনজার অঞ্চলে অভিযান শুরু করেছে তুর্কি সামরিক বাহিনী। আমরা বলেছিলাম, আমরা সিনজারের দিকে অগ্রসর হবো। এখন সেখানে অপারেশন শুরু হয়েছে। সেখানে অভ্যন্তরীণ এবং বাহ্যিক উভয়ভাবেই লড়াই চলছে। রোববার ত্রাবজোনের ব্ল্যাক সি প্রদেশে জনগণের উদ্দেশ্যে দেয়া ভাষণে এ তথ্য জানিয়েছেন তিনি।

সম্প্রতি তুরস্কের ক্ষমতাসীন দল জাস্টিস অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট (একে) পার্টির এক সমাবেশে এরদোগান বলেছেন, সিরীয় সীমান্ত বরাবর যারা আঙ্কারার সমর্থন চাইবে, তাদের সহযোগিতায় এগিয়ে যাওয়া হবে। সিরিয়ার ভাইদের উদ্ধার না করা পর্যন্ত আমরা থামব না। আমাদের দেশের জন্য সেখানে যে ফাঁদ পাতা রয়েছে, তা সম্পূর্ণ উচ্ছেদ করে ছাড়ব। কেউ বলতে পারবেন না তুরস্ক কিংবা তুরস্কের সেনাবাহিনী সিরিয়ায় হস্তক্ষেপ করেছে।

এরদোগান বলেছিলেন, যুক্তরাষ্ট্র তুরস্ককে ঠেকাতে ও ঠকাতে চেষ্টা করেছিল। যদি আমরা আপনাদের (যুক্তরাষ্ট্রের) কৌশলগত অংশীদার হই তাহলে আপনাদের উচিত আমাদেরকে মর্যাদার চোখে দেখা, আমাদের সঙ্গে থাকা। কিন্তু আপনারা আমাদেরকে ঠেকানোর চেষ্টা করেছেন। আপনারা সেখানে (সিরিয়ায়) ৫ হাজার ট্রাক অস্ত্র পাঠিয়েছেন। আর দুই হাজারের ওপর গোলাবারুদ বহনকারী সাজোয়া যান পাঠিয়েছেন। আমরা আমাদের টাকা দিয়ে আপনাদের কাছ থেকে অস্ত্র কিনতে চেয়েছি; কিন্তু আপনারা তা হতে দেননি। তাহলে আমরা কী ধরনের কৌশলগত অংশীদার? অথবা কী ধরনের সংহতি আপনারা আমাদের প্রতি রাখেন?

সম্প্রতি সিরিয়ার আফরিনে তুরস্কের সেনাবাহিনীর অভিযানের বিষয়ে মার্কিন সরকার এক প্রতিক্রিয়ায় জানায় যে, আফরিন ইস্যুতে হোয়াইট হাউস ওয়াকিবহাল আছে এবং যুক্তরাষ্ট্র সরকার এ বিষয়ে তীক্ষ্ণ দৃষ্টি রাখছে। এমন মন্তব্যের প্রতিবাদে যুক্তরাষ্ট্র  সরকারের দিকে প্রশ্ন ছুঁড়ে এরদোগান বলেন, আমরা যখন আমাদের উদ্বেগের কথা আপনাদের জানিয়েছিলাম তখন আপনাদের দৃষ্টি কোথায় ছিল? যখন আমরা বলেছিলাম যে আসেন একসাথে সিরিয়াকে সন্ত্রাসবাদ থেকে মুক্ত করি তখন আপনারা কই
ছিলেন?

সূত্রঃ ডেইলী নিউজ, টলো নিউজ ও আনাদুলু

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫