ঢাকা, সোমবার,২৫ মে ২০২০

থেরাপি

ছাগলের রচনা

মাহবুবুর রশিদ

১৯ এপ্রিল ২০১৮,বৃহস্পতিবার, ০০:০০


প্রিন্ট

স্কুলে গরুর রচনা পড়েন নাই এমন মানুষ খুবই কমই আছেন। আবার ছাগল নিয়েও পাঠ্যবইয়ে কম মাতামাতি হয়নি। এই যেমন পাগলে কি না বলে ছাগলে কিনা খায়। ছাগলে যা-ই খাক এটা তার একান্ত ব্যক্তিগত ব্যাপার। তবে স্কুলে গরুর রচনা শেখানো হলেও ছাগলের রচনা শেখানো হয় না। তাই আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি আপনাদেরকে ছাগলের রচনাও শেখাব।
ভূমিকা
ছাগল একটি নিরীহ, নম্র ও ভদ্র স্বভাবের লোক... থুক্কু প্রাণী। তারা উগ্র মেজাজি কিংবা উচ্চবিলাসী নয়। কারণ গরুর নিজস্ব গাড়ি থাকলেও এখন পর্যন্ত কোনো ছাগলের ব্যক্তিগত কোনো গাড়ি দেখা যায়নি। ছাগল থেকে আমরা অনেক উপকৃত হই। বিনিময়ে ছাগল আমাদের কাছ থেকে কোনো কিছুই পায় না। ছাগলের ঋণ আমরা কোনো দিন শোধ করতে পারব না।
বর্ণনা
ছাগলের দুটি হাত, দুটি পা, দুটি সিসি ক্যামেরা আইমিন চোখ ও অর্ধেক লেজ রয়েছে। পৃথিবীতে নানা প্রজাতির ছাগল থাকলেও আমাদের দেশে সাধারণত দুই ধরনের ছাগল বেশি দেখা যায়। যেমন কালো রঙের ছাগল ও ভেড়া ছাগল। ভেড়া ছাগলের লোম অনেকটা পাটের মতো দেখতে।
খাদ্য
আমাদের জাতীয় ফল কাঁঠাল। আর ছাগলের প্রিয় খাবার কাঁঠাল পাতা। কাজেই ছাগলের খাবারের সাথে মানুষের খাবারের অনেকটা মিল রয়েছে। ছাগল পশু হলেও তারা কখনো ধূমপান করে পরিবেশ দূষিত করে না। মানুষ পরিবেশ নষ্ট করে।
উপকারিতা
ছাগল আমাদের পরমপ্রিয় বন্ধু। তারা পলিথিন সাবাড় করে আমাদের পরিবেশকে রা করে। পৃথিবীর সব ছাগল কিছুটা ইংরেজি ভাষায় কথা বলতে পারে। এই যেমন ইংরেজি এপ্রিল মাসের পরের মাসের নাম সব ছাগলই অনায়াসে বলতে পারেÑ মে-এ-এ। অর্থাৎ মে মাস। সমাজে ছাগলের অনেক অবদান রয়েছে।
অপকারিতা
দোষে-গুণে ছাগল। কোনো ছাগলই ভুলের ঊর্ধ্বে নয়। যেমন গরু দিয়ে হালচাষ করা গেলেও ছাগল দিয়ে হালচাষ করা যায় না। ছাগলের গোবর কোনো কাজে আসে না। ছাগলের চামড়া দিয়ে ভালোমানের জুতোও তৈরি করা যায় না। ছাগলের নিজস্ব স্যানিটেশন ব্যবস্থা না থাকায় যত্রতত্র মল-মূত্র ত্যাগ করে পরিবেশ দূষিত করে।
উপসংহার
পরিশেষে বলা যায়, ছাগল পশু হলেও তারা ভালো মানুষ... থুক্কু ভালো পশু। কারণ এখন পর্যন্ত কোনো ছাগলকে সমাজবিরোধী কোনো কর্মকাণ্ডে লিপ্ত হতে দেখা যায়নি।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫