ঢাকা, মঙ্গলবার,৩১ মার্চ ২০২০

তুরস্ক

তুরস্ককে ৩৫ লাখ সিরীয় শরণার্থীকে আশ্রয় দিতে হয়েছে : এরদোগান

আনাদোলু এজেন্সি

১৯ এপ্রিল ২০১৮,বৃহস্পতিবার, ১৬:১৩


প্রিন্ট
তুরস্ককে ৩৫ লাখ সিরীয় শরণার্থীকে আশ্রয় দিতে হয়েছে : এরদোগান

তুরস্ককে ৩৫ লাখ সিরীয় শরণার্থীকে আশ্রয় দিতে হয়েছে : এরদোগান

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেপ এরদোগান বলেছেন, ঔপনিবেশিক শক্তিগুলো সিরিয়ার শরণার্থীদের আশ্রয় দিচ্ছে না। অথচ তুরস্ককে ৩৫ লাখ সিরীয় শরণার্থীকে আশ্রয় দিতে হয়েছে।

‘এরদোগান আর্জেস নিউ গ্রাউন্ডওয়ার্ক ফর ওয়ার্ল্ড পিস’ শীর্ষক প্রতিবেদনটিতে এরদোগানের বক্তব্য উদ্ধৃত করেছে আনাদোলু এজেন্সি।

এরদোগান সিরিয়াতে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য ও ফ্রান্সের যৌথ ক্ষেপণাস্ত্র হামলার সমালোচনা করে বলেছেন, তারা এসে বলল, ওখানে রাসায়নিক অস্ত্র আছে। আর তারপর হামলা চালালো। রাসায়নিক অস্ত্রের তুলনায় ঢের বেশি মানুষ মারা গেছে প্রচলিত অস্ত্রের কারণে।

এরদোগান প্রশ্ন করেন, ‘আমি জানতে চাই, আপনারা শুধু রাসায়নিক অস্ত্রের বিষয়ে কেন খোঁজ করেন? আপনারা প্রচলিত অস্ত্রের ব্যবহার খতিয়ে দেখছেন না কেন? রাসায়নিক অস্ত্রে যদি একজনের মৃত্যু হয়ে থাকে হয়ে থাকে, তাহলে প্রচলিত অস্ত্রের কারণে সেখানে ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে।’

এরদোগান বলেন, ইচ্ছামতো দেশগুলোর ওপরে চালানো বোমাবৃষ্টি এবং ব্যারেল বোমা নিক্ষেপ বন্ধ করে আসুন বিশ্ব শান্তি নিশ্চিতে একটি নতুন ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করি।

 

বৃহত্তম বিমানবন্দর তৈরি হচ্ছে তুরস্কে

তুরস্কের বৃহত্তম শহর ইস্তানবুলে তৃতীয় বিমানবন্দর চালু হতে যাচ্ছে অক্টোবরে। তুরস্ক বলছে, পুরোপুরি প্রস্তুত হওয়ার পর এই বিমানবন্দরটি হবে বিশ্বের বৃহত্তম বিমানবন্দর।

এটি চালু হওয়ার পর আতাতুর্ক বিমানবন্দরগামী সব ফ্লাইট নতুন বিমানবন্দরে অবতরণ করবে। নতুন এ বিমানবন্দরে ১শ' ১৪টি বিমান ধারণের ক্ষমতা রয়েছে।

এটি চালু হলে কর্মসংস্থান সৃষ্টি হবে ২ লাখ ২৫ হাজার মানুষের। বর্তমানে ইউরোপের ৫টি ব্যস্ত বিমানবন্দরের মধ্যে আতাতুর্ক বিমানবন্দর একটি। নতুন বিমানবন্দর চালু হলে বন্ধ হয়ে যাবে পুরনোটি।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫