ঢাকা, সোমবার,০৬ এপ্রিল ২০২০

তুরস্ক

সন্ত্রাসী সংগঠনগুলোকে বিনামূল্যে অস্ত্র দিচ্ছে আমেরিকা : এরদোগান

তুর্কি এনটিভি

২৩ এপ্রিল ২০১৮,সোমবার, ১৫:২৬


প্রিন্ট
সন্ত্রাসী সংগঠনগুলোকে বিনামূল্যে অস্ত্র দিচ্ছে আমেরিকা : এরদোগান

সন্ত্রাসী সংগঠনগুলোকে বিনামূল্যে অস্ত্র দিচ্ছে আমেরিকা : এরদোগান

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তায়্যেপ এরদোগান বলেন, সিরিয়ায় অস্ত্রের চালান পাঠানো অব্যাহত রেখেছে আমেরিকা। সিরিয়ায় ৫ হাজার ট্রাক অস্ত্র পাঠিয়েছে আমেরিকা। আমেরিকা ও তার মিত্ররা বিনামূল্যে কুর্দি গেরিলাদেরকে অস্ত্র দিচ্ছে। এসময় এটিকে তুরস্কের নিরাপত্তার জন্য হুমকি হয়ে দেখা দিয়েছে।

তুর্কি এনটিভিকে দেয়া সাক্ষাৎকারে এরদোগান বলেন, আমেরিকা ও তার মিত্ররা তুরস্কের কাছে অস্ত্র বিক্রির প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেছে। অথচ তারা নিষিদ্ধ ঘোষিত কুর্দি গেরিলাদেরকে অস্ত্র যোগান দিচ্ছে। আমরা অর্থ দিয়ে আমেরিকার কাছ থেকে অস্ত্র কিনতে পারি না। অথচ দুঃখজনকভাবে আমেরিকা ও তার মিত্ররা সন্ত্রাসী সংগঠনগুলোকে বিনামূল্যে সেই অস্ত্র ও গোলাবারুদ দিচ্ছে। অতএব হুমকিটা কোথা থেকে আসছে? এই হুমকি প্রাথমিকভাবে আসছে কৌশলগত মিত্রদের কাছ থেকে।

ব্যর্থ সেনা অভ্যুত্থানে জড়িত থাকার অভিযোগে তুরস্কে আটক যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক অ্যান্ড্রু ব্রানসনকে ফেরত চাওয়ার বিষয়ে এরদোগান বলেছেন, অ্যান্ড্র ব্রানসনকে ফেরত চাওয়ার আগে ফতেহুল্লাহ গুলেনকে নিয়ে আপনাদের পদক্ষেপ স্মরণ করুন। অ্যান্ড্র ব্রানসন গত দুই দশকেরও বেশি সময় ধরে তুরস্কে বসবাস করছেন। ২০১৬ সালের ব্যর্থ সেনা অভ্যুত্থানে জড়িত থাকার অভিযোগে তাকে আটক করে ৩৫ বছরের সাজা দেয় তুরস্ক সরকার। আটক করার পর থেকেই যুক্তরাষ্ট্র তাকে ফেরত নেয়ার দাবি জানিয়ে আসছে। অন্য দিকে ওই অভ্যুত্থানের সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে ১৯৯৯ সাল থেকে যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসরত ফতেহুল্লাহ গুলেনকে বারবার তুরস্কে ফেরত চাওয়ার পরও যুক্তরাষ্ট্র ফেরত দিচ্ছে না।

তুরস্ককে ৩৫ লাখ সিরীয় শরণার্থীকে আশ্রয় দিতে হয়েছে : এরদোগান
আনাদোলু এজেন্সি

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেপ এরদোগান বলেছেন, ঔপনিবেশিক শক্তিগুলো সিরিয়ার শরণার্থীদের আশ্রয় দিচ্ছে না। অথচ তুরস্ককে ৩৫ লাখ সিরীয় শরণার্থীকে আশ্রয় দিতে হয়েছে।

‘এরদোগান আর্জেস নিউ গ্রাউন্ডওয়ার্ক ফর ওয়ার্ল্ড পিস’ শীর্ষক প্রতিবেদনটিতে এরদোগানের বক্তব্য উদ্ধৃত করেছে আনাদোলু এজেন্সি।

এরদোগান সিরিয়াতে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য ও ফ্রান্সের যৌথ ক্ষেপণাস্ত্র হামলার সমালোচনা করে বলেছেন, তারা এসে বলল, ওখানে রাসায়নিক অস্ত্র আছে। আর তারপর হামলা চালালো। রাসায়নিক অস্ত্রের তুলনায় ঢের বেশি মানুষ মারা গেছে প্রচলিত অস্ত্রের কারণে।

এরদোগান প্রশ্ন করেন, ‘আমি জানতে চাই, আপনারা শুধু রাসায়নিক অস্ত্রের বিষয়ে কেন খোঁজ করেন? আপনারা প্রচলিত অস্ত্রের ব্যবহার খতিয়ে দেখছেন না কেন? রাসায়নিক অস্ত্রে যদি একজনের মৃত্যু হয়ে থাকে হয়ে থাকে, তাহলে প্রচলিত অস্ত্রের কারণে সেখানে ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে।’

এরদোগান বলেন, ইচ্ছামতো দেশগুলোর ওপরে চালানো বোমাবৃষ্টি এবং ব্যারেল বোমা নিক্ষেপ বন্ধ করে আসুন বিশ্ব শান্তি নিশ্চিতে একটি নতুন ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করি।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫